বুধবার ২৯ †m‡Þ¤^i ২০২১
  • প্রচ্ছদ » sub lead 1 » কফির সাথে ঘুমের ট্যাবলেট পান করিয়ে গাড়ি ছিনতাই


কফির সাথে ঘুমের ট্যাবলেট পান করিয়ে গাড়ি ছিনতাই


আমাদের কুমিল্লা .কম :
19.08.2021

মাহফুজ নান্টু।। এক গাড়ি চালককে ডেকে এনে কফির সাথে ঘুমের ট্যাবলেট মিশিয়ে পান করান। গাড়ি নিয়ে চলে যান চট্টগ্রামে। সেখানে গাড়িচালককে পাহাড় থেকে ফেলে গাড়ি নিয়ে উধাও হন তারা।
এ ঘটনায় পুলিশ গাড়ি ছিনতাই চক্রের দুই সদস্যকে গ্রেফতার করে। পরে তাদেরকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। ছিনতাইয়ের ঘটনাটি ঘটে ১৫ আগস্ট। ১৮আগস্ট বিকেল ৪টায় তাদের কারাগারে প্রেরণ করা হয়।
গ্রেফতার যুবক আসিফ আহমেদ ওরফে মাটি (১৯) এবং তার প্রতিবেশী মো. শাহজালাল শাকিল (২২)। তাদের দুজনের বাড়ি কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলার কনেশতলা গ্রামে।
পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত ১৫ অগাস্ট প্রাইভেট কার চালক আবদুল কুদ্দুসকে চট্টগ্রামে যাওয়ার জন্য সাড়ে ৬ হাজার টাকায় আসিফ ও তার সঙ্গী শাহজালালসহ মিলে ভাড়া ঠিক করেন। বেলা সাড়ে ১০ টায় কুমিল্লা টমছমব্রিজ এলাকায় গাড়ি নিয়ে আসেন চালক কুদ্দুস। নাস্তা করতে একটি হোটেলে প্রবেশ করেন। পরে আসিফ ও জালাল কৌশলে গাড়ি চালক কুদ্দুসের কফির মগে নেশাজাতীয় ট্যাবলেট দেয়।
পরে চালকসহ সবাই প্রাইভেটকারে আরোহণ করলে চালক কুদ্দুস অচেতন হয়ে পড়ে। আসিফ চালকের আসনে বসেন, আর অচেতন কুদ্দুসকে পেছনে বসিয়ে গাড়ি নিয়ে ছোটেন। পথিমধ্যে চট্টগ্রাম জেলার জোরারগঞ্জ থানার হেয়াকো এলাকায় নিয়ে একটি পাহাড় থেকে চালক কুদ্দুসকে ফেলে দেয় আসিফ ও তার সঙ্গী জালাল।
পরে স্থানীয়রা ৯৯৯ এ পুলিশকে ফোন করে জানান, একজন মানুষ অচেতন পড়ে আছে।পরে পুলিশ তাকে হাসপাতালে ভর্তি করে। চাকল আবদুল কুদ্দুসের বাড়ি কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার ডকলাপাড়া গ্রামে।
এদিকে খবর পেয়ে গাড়ির মালিক মিজানুর রহমান চট্টগ্রামের জোরারগঞ্জ থেকে চালক কুদ্দুসকে কুমিল্লায় নিয়ে আসেন। গাড়ির মালিক মিজান ১৭ অগাস্ট বিকেলে কুমিল্লা কোতয়ালি থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। পরে মামলাটি ডিবি পুলিশের কাছে হস্তান্তর হয়।
কুমিল্লা জেলা ডিবি পুলিশের উপপরিদর্শক পরিমল দাশ জানান, কোতয়ালি থানায় মামলাটি হলে কুমিল্লা জেলার পুলিশ সুপার মহোদয় দ্রুত আসামিদের আটকের জন্য নির্দেশ দেন। পরে প্রযুক্তি ব্যবহার করে আসামিদের ১২ ঘণ্টার মধ্যে আটক করি। প্রথমে মামলার প্রধান আসামি আসিফকে নগরীর ইয়াছিন মার্কেট এলাকা থেকে আটক করি। তার দেয়া তথ্যমতে গাড়ি উদ্ধার করি ও কনেশতলা গ্রাম থেকে অপর আসামি শাহজালালকে আটক করি।
গ্রেফতার আসিফ প্রাথমিক স্বীকারোক্তিতে জানান, বিভিন্ন কারণে ঋণগ্রস্ত হয়ে যায় সে। ঋণ পরিশোধ করতে গাড়ি ছিনতাইয়ের বিষয়ে পরিকল্পনা করেন।
উপপরিদর্শক পরিমল দাশ আরো জানান, বুধবার বিকেল ৪ টায় দুই আসামিকে আদালতে নিলে কুমিল্লা সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ৩য় আদালতের বিচারক নুসরাত জাহান ঊর্মি তাদের কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন।