শনিবার ১৮ †m‡Þ¤^i ২০২১


কুমিল্লায় মাদক ব্যবসায় বাঁধা দেয়ায় কলেজ ছাত্র খুন


আমাদের কুমিল্লা .কম :
27.08.2021

মাহফুজ নান্টু।।
মাদক ব্যবসায় বাঁধা দেয়ার কারণে মিথুন ভূইয়া নামের এক যুবককে কুপিয়ে আহত করে দূর্বৃত্তরা। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার সকাল ১০ টায় সে মারা যায়। নিহত মিথুন ভূইয়া (১৯) কুমিল্লা মহানগরীর ১৫ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা লিটন মিয়ার ছেলে। অভিযুক্ত মেরাজ একই এলাকার রহিম মিয়ার ছেলে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কুমিল্লা কোতয়ালী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আনওয়ারুল আজিম।

এদিকে যুবক খুনের ঘটনায় মূল হত্যাকারী মেরাজ ও তার সহযোগী শরিফুল ইসলাম রাসেলকে শুক্রবার দুপুরু পৌনে একটার দিকে নগরীর প্রফেসর পাড়া থেকে গ্রেফতার করা হয়।

নিহত মিথুন ভূইয়ার বাবা লিটন মিয়া জানান, গত বুধবার (২৫ আগস্ট) আমার ছেলে বাড়ীর পাশে দাঁড়িয়েছে ছিলো। এ সময় মেরাজ হঠাৎ করে বড় একটি দা নিয়ে এসে আমার ছেলেকে কোপাতে থাকে। এতে তার তিনটি আঙ্গুল বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ ঘটে।

এ সময় স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

২৬ আগস্ট বৃহস্পতিবার বিকেলে তাকে কুমিল্লা নিয়ে আসা হয়। ভর্তি করা হয় কুমিল্লা মেডিকেল সেন্টারের আইসিওতে। আজ শুক্রবার ভোরে অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় আবার তাকে ঢাকায় প্রেরণ করা হয়। পরে সকাল ১০ টায় সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় মিথুন। নিহত মিথুন স্নাতক চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলো।

মিথুন ভূইয়ার বাবা লিটন জানান, তার ছেলে মিথুন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন জাগ্রত মানবিকতার কো-অর্ডিনেটর ছিলো। এলাকায় মাদক ব্যবসায়ী ও মাদক সেবীদের বিরুদ্ধে সামাজিক সচেতনতা তৈরী করায় এলাকায় মাদকসেবী ও মাদক ব্যবসায়ীদের চোখের শত্রু ছিলো সে।

লিটন কান্নাজড়িত কন্ঠে জানান, শুধু মাদক ব্যবসায় বাঁধা দেয়ায় আমার ছেলেকে প্রান দিতে হলো। আমি আসামীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

কুমিল্লা কোতয়ালী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আনওয়ারুল আজিম জানান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মহোদয়ের নির্দেশনায় দুপুরে আসামী দুজনকে আটক করা হয়েছে। আটক মেরাজ ও রাসেল সম্পর্কে আপন মামা-ভাগ্নে। আটক দুজনের বিষয়ে মামলা দায়ের শেষে শনিবার কারাগারে প্রেরণ করা হবে।