বুধবার ২৮ জুলাই ২০২১


কুমিল্লা মহানগর ছাত্রলীগের উদ্যোগে করোনা ভ্যাকসিন নিবন্ধন কেন্দ্র চালু


আমাদের কুমিল্লা .কম :
19.02.2021

 

 

স্টাফ রিপোর্টারঃ ভ্যাকসিন টিকাকে নয় ভয় ,ভ্যাকসিনেই হয় করোনা জয়, এমন স্লোগানকে সামনে রেখে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কুমিল্লা মহানগর শাখার উদ্যোগে ভ্যাকসিন নিবন্ধন কেন্দ্র শুরু করা হয়েছে। শুক্রবার সকালে নগরীর বাদুড়তলা ওয়াই ডব্লিওসিএ স্কুল সংলগ্ন এলাকায় করোনা ভ্যাকসিন নিবন্ধন কেন্দ্র শুরু হয়। পথচারী, রিক্সচালক, দিনমজুর, ইন্টারনেট সংযোগ যাদের নেই তাদের জন্যই বিনামূল্য ভ্যাকসিন নিবন্ধন পয়েন্ট চালু করেছে কুমিল্লা মহানগর ছাত্রলীগ । শুক্রবার সকালে চালু হওয়া ভ্যাকসিন পয়েন্টে রেজিস্টেশন করতে আসা রিকশা চালক মতিন মিয়া জানান, আমাগো কপালে ভ্যাকসিন আশা করি নাই। আল্লাহ রহমতে আমার কাজ অইছে। আমি অহন টিকা লইতাম পারমু। ভ্যানে করে সবজি বিক্রি করেন মামুন মিয়া। কিভাবে নিবন্ধন করবেন তিনি জানেন না। আজ ছাত্রলীগের উদ্যোগে ভ্যাক্সিনের নিবন্ধন করতে পেরে খুশি মামুন। শুক্রবার সকালে নগরীর বাদুরতলা ওয়াইডব্লিও সিএ স্কুল সংলগ্ন এলাকায় বিনামূল্য ভ্যাকসিন রেজিষ্ট্রেশন পয়েন্টের উদ্যেগে গ্রহন করেন কুমিল্লা মহানগর ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক নাইমুল হক হিমেল। এই সময় উপস্থিত ছিলেন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজের ইংরেজি বিভাগে সাংগঠনিক সম্পাদক ছাত্রলীগ নেতা কাজী সিরাজ, ১৯ নং ওয়ার্ড শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি নুরুজ্জামান সুজন, ২৩ নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সভাপতি তানজির হাসান ৮নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাজু ভৌমিক, ১০ নং ওয়ার্ডের ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রায়হান উদ্দিন, ভিক্টোরিয়া সরকারী কলেজের বাংলা বিভাগ ছাত্রলীগের সভাপতি রুবেল আহম্মেদ শুকরিয়া, ইতিহাস বিভাগ সাংগঠনিক সম্পাদক জানে আলম ফাহাদসহ কুমিল্লা মহানগর ছাত্রলীগের সদস্য রাজিব, অমিত, সৌকত, শিশির, আকাশ, জেবাল , সায়েম, শ্রাবন প্রমূখ। ভ্যাক্সিন পয়েন্ট নিয়ে কুমিল্লা মহানগর ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক নাইমুল হক হিমেল বলেন, কুমিল্লা ৬ সদর আসনের মাননীয় সাংসদ মহানগর আওয়ামীলীগের সংগ্রামী সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজী আ.ক.ম বাহাউদ্দিন বাহার, যিনি পুরো করোনার ভয়াবহ পরিস্থিতিতে নিজে বাহিরে থেকে কুমিল্লার মানুষের জন্যে দিনরাত শ্রম দিয়েছেন কুমিল্লার মানুষকে সেবা দিয়েছেন এখনো দিচ্ছেন আমরা মহানগর ছাত্রলীগ তারই আদর্শে অনুপ্রানিত হয়ে করোনার ভ্যাক্সিন নিবন্ধন পয়েন্ট চালু করেছি। যারা নিবন্ধন করতে পারেন না, যাদের ইন্টারনেট সংযোগ কিংবা যারা পথচারী কিংবা নিম্ন আয়ের মানুষজন আছেন তাদের জন্যই আমরা করোনা ভ্যাক্সিন নিবন্ধন পয়েন্ট করেছি। আমাদের এ কার্যক্রম চলমান থাকবে।