মঙ্গল্বার ১৮ †g ২০২১


দীর্ঘ লকডাউনের শঙ্কায় নগরীতে কেনাকাটার ধুম যানজটে জনদুর্ভোগ


আমাদের কুমিল্লা .কম :
12.04.2021

রুবেল মজুমদার ।।
করোনাভাইরাসের প্রকোপ রোধে আগামী ১৪ এপ্রিল থেকে দেশব্যাপী কঠোর লকডাউনের খবরে স্বাস্থ্যবিধি ভুলে কেনাকাটায় মেতেছে মানুষ। সোমবার কুমিল্লার নগরীসহ বিভিন্ন উপজেলার হাটবাজার ও মার্কেটে ক্রেতাদের উপচে পড়া ভিড় দেখা গেছে।কিছুদিন আগেই ‘লকডাউনের’ মধ্যে দোকান মালিক ও কর্মচারীদের আন্দোলনের মুখে শুক্রবার থেকে স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালন সাপেক্ষে দোকানপাট ও শপিংমল খোলা রাখার ঘোষণা দেওয়া হয়। কিন্তু বেশিরভাগ জায়গায় স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব তেমন একটা মানা হয়নি। গাদাগাদি-ঠেলাঠেলি করে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যসহ অনেকেই সেরে ফেলছেন ঈদের কেনাকাটা।
সরেজমিনে গিয়ে দেখার যায়, লকডাউন ঘোষণার পর হঠাৎ নগরীর বিভিন্ন মার্কেট ও শপিংমল উপচে পড়া ভিড় ছিল মানুষের । এই ভিড় কেন্দ্র করে নগরজুড়ে সৃষ্টি হয় যানজট। নগরীর টমছমব্রিজ থেকে মেডিকেল রোড, মসজিদের সামনে থেকে কান্দিরপাড়, ফল দোকানের সামনে থেকে চকবাজার ও কোটবাড়ি রোডে, অপরদিকে পদুয়ার বাজার বিশ্বরোডমুখী স্ট্যান্ড, কান্দিরপাড় পূবালী চত্বর থেকে রানীর বাজার রোড, সিটি রেস্টুরেন্টের সামনে থেকে শাসনগাছা, নিউ মার্কেটের সামনে থেকে জিলা স্কুল রোড এবং লিবার্টি মোড় থেকে রাজগঞ্জ ও ভিক্টোরিয়া কলেজ রোড, রাজগঞ্জ ট্রাফিক মোড়, কোতয়ালী থানা গেট ও চকবাজার কাশারীপট্টি মোড়, চকবাজার আলীয়া মাদরাসা গেটসহ বিভিন্ন কুমিল্লা প্রবেশ পথ সড়কগুলোতে সৃষ্টি হয় তীব্র যানজট ।
এদিকে ববাজারে মানুষের ভিড়ের কারণে প্রবেশপথ বন্ধ হয়ে যায়। চারদিকে শুধু মানুষ আর মানুষ । ক্রেতাদের সামালতে হিমশিম পড়তে হয় ট্রাফিক পুলিশদের ।
নগরীর খন্দকার টাওয়ারে ইদের শপিং করতে চান্দিনা থেকে আসা ফারজানা আক্তার বলেন, গত বছর লকডাউনের কারেণ আমার ঈদে মার্কেট করতে পারিনি। সামনে শুনলাম বড় লকডাউন দিয়েছে সরকার ,তাই এবার পরিবারসহ আমরা ঈদের মার্কেট করতে এসেছি। জানি না সামনে আবার কি হয়। লকডাউনের কারণে তো ঈদের আনন্দ মাটি করে দিতে পারি না ।
চকবাজার বাজারে বাজার করতে আসার রমজানের মিয়া বলে, সরকার সামনে বড় লকডাউন ঘোষণা করেছে। মানুষ নাকি রাস্তা নামতে পারবে না। তাই পরিবারসহ বমজানে মাসের বাজার করতে আসছি ।
কুমিল্লা জেলা প্রশাসক মো. কামরুল ইসলাম বলেন, বিকাল ৫টার মধ্যে শহরে দোকানপাট ও শপিংমল বন্ধ করতে বলা হয়েছে । স্বাস্থ্যবিধি বিষয় তাদের কঠোর নিদের্শনা দেওয়ার হয়েছে। রমজানকে কেন্দ্র করে হঠাৎ শহরে মানুষের ভিড় সৃষ্টি হয়েছে। এবিষয়ে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করবো ।