রবিবার ৯ †g ২০২১
  • প্রচ্ছদ » sub lead 1 » কুমিল্লা ইপিজেডে কর্মকর্তা খুনের তিন দিনেও ধরা পড়েনি আসামি


কুমিল্লা ইপিজেডে কর্মকর্তা খুনের তিন দিনেও ধরা পড়েনি আসামি


আমাদের কুমিল্লা .কম :
03.05.2021

মাহফুজ নান্টু ।
কুমিল্লা রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ অঞ্চল (ইপিজেড)’র চীনা জুতা কোম্পানী সিং-সাং। মাসখানেক আগে অনিয়মের অভিযোগে ওই কোম্পানি থেকে চাকরিচ্যুত করা হয় বেশ কয়েকজন কর্মচারীকে। এ নিয়ে ক্ষোভে ফুঁসে ছিলো দুজন কর্মচারী। পরিকল্পনা করে যে কর্মকর্তা চাকরিচ্যুত করেছে তাকে খুন করা হবে।
গত ৩০ এপ্রিল শুক্রবার। অফিস শেষে বাসায় ফিরছিলো চীনা জুতা কোম্পানি সিং-সাং এর কর্মকর্তা খায়রুল বাশার। পূর্ব থেকে ইপিজেডের মূল ফটকের বাইরে অপেক্ষা করছিলো চাকরিচ্যুত দুই কর্মচারী। খায়রুল বাশার ইপিজেডের মূল ফটকের বিপরীতে রোসা সুপার শপের সামনে পৌঁছালে তার উপর অর্তকিত হামলা চালায় চাকরিচ্যুত ওই দুই কর্মচারী।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, এ সময় ওই দুই কর্মচারী বার বার বলছিলো তুই কেন আমাদের চাকরি থেকে বাদ করছোস। এ কথা বলেই হাতে থাকা চাপাতি ও ছুরি দিয়ে কোপাতে থাকে খায়রুল বাশারকে। পরে রক্তাক্ত অবস্থায় খায়রুল বাশারকে ফেলে রেখে মটর সাইকেল দিয়ে পালিয়ে যায় ঘাতকরা।
পুলিশ প্রাথমিক তথ্য নিশ্চিত হলেও ঘটনার আজ তিনদিন পার হলেও কোন আসামিকে ধরতে পারেনি।
বিষয়টি নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন নিহত খায়রুল বাশারের বাবা আবদুল মতিন মাস্টার। তিনি বলেন, আমার পুলারে দূরের কেউ খুন করেনি। এই কোম্পানিতে চাকরি করা ছেলেরাই খুন করছে। কোম্পানির লোকজন সবই জানে। আজ তিন দিন পার হইছে। কোন আসামিরে পুলিশ ধরতে পারছে না।
শুক্রবার খুনের ঘটনার পর দিন নিহতের ছোট ভাই খায়রুল এনাম বাদী হয়ে সদর দক্ষিণ থানায় দুই জনের নামোল্লেখ করে এবং দুইজনকে অজ্ঞাত করে মামলা দায়ের করা হয়।
মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, মামলার দুই আসামি কুমিল্লা নগরীর দক্ষিণ চর্থা এলাকার মহিউদ্দিন (২২) ও রাফি (২০)।
কুমিল্লা সদর দক্ষিণ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দেবাশীষ চৌধুরী জানান, আমরা তদন্ত করছি। আশা করি খুব শীঘ্রই আসামিদের আটকের খবর জানাতে পারবো।