সোমবার ১৪ জুন ২০২১


গোমতী থেকে ২৪ ঘন্টা পর স্কুল শিক্ষার্থীর লাশ উদ্ধার


আমাদের কুমিল্লা .কম :
17.05.2021

মাহফুজ নান্টু ।
বড় ভাইয়ের বন্ধুর বেড়াতে এসে নদীতে গোসল করতে গিয়ে নিখোঁজ হয় নবম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী। রবিবার দুপুর ২ টায় এ ঘটনা ঘটে। পরে সোমবার বেলা ২ টায় ওই শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার করে ডুবুরি।
নিহত শিক্ষার্থীর নাম ফারহান আহমেদ সিয়াম(১৫)। সে বুড়িচং মডেল একাডেমির শিক্ষার্থী। কুমিল্লা বুড়িচং উপজেলা সদরের দক্ষিণ পাড়া এলাকার বাসিন্দা জহির উদ্দিন বাবরের ছেলে।
সোমবার দুপুর ২ টায় বুড়িচং ফায়ার স্টেশনের সহযোগিতায় চাঁদপুর থেকে আসা ডুবুরিদল সিয়ামের লাশ উদ্ধার করে। বিষয়টি নিশ্চিত করেন ফায়ারম্যান সোহেল রানা।
সিয়ামের মামাতো ভাই আরিফুল ইসলাম বাঁধন জানান, সিয়াম তার ফুফাত ভাই একাদশ শ্রেণির ছাত্র তানভিরের বন্ধু নাঈমদের বাড়ি রামনগর গ্রামে তার বেড়াতে যায়। পরে নাইম ও তানভীরসহ অন্যরা পাশের গোমতী নদীতে গোসল করতে যায়। এ সময়ও নাঈমও নদীতে গোসল করতে ইচ্ছে প্রকাশ করলে তাকে সবাই বারণ করে। পরে সিয়াম কারো বারণ না মেনে নদীতে গোছল করতে যায়।
সিয়ামের মামাতো ভাই বাঁধন আরো জানান, সিয়াম অন্যান্যদের সাথে বাটারফ্লাই স্টাইলে সাতার কেটে নদীর ওইপাড় যায়। আসার সময় অন্য তিনজন নদীর এপাড়ে পৌঁছালেও সিয়াম নদীর পানিতে তলিয়ে যায়। পরে বহু খোঁজাখুজি করেও সিয়ামকে আর পাওয়া যায়নি।
এদিকে সিয়াম নদীতে হারিয়ে গেছে এমন খবরে সিয়ামের মা ও সিয়ামের স্বজনরা গতকাল রবিবার থেকে নদীর পাড়ে ছিলেন।
সিয়ামের মা ফাহিমা আক্তার রুমা জানান, তার দুই ছেলের মধ্যে সিয়াম ছোট। বড় ছেলেটা বুদ্ধি প্রতিবন্ধী। সিয়ামের বাবা জহির উদ্দিন বাবর প্রবাসী। ছেলে হারিয়ে মা ফাহিমা আক্তার রুমা ডুকরে কেঁদে উঠছেন।
কুমিল্লা বুড়িচং থানার উপ-পরিদর্শক মামুন জানান, সোমবার বেলা ২ টায় সিয়ামের লাশ উদ্ধার করা হয়। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।