মঙ্গল্বার ১৫ জুন ২০২১


গ্রামজুড়ে ময়লা আবর্জনার স্তূপ


আমাদের কুমিল্লা .কম :
29.05.2021

রুবেল মজুমদার :
কুমিল্লায় জেলার আদর্শ সদর উপজেলার দুর্গাপুর ইউনিয়নের বদরপুর গ্রামটিতে ময়লার স্তূপের কারণে দুর্গন্ধে দিশেহারা হয়ে পড়েছে সাধারণ মানুষ। অসচেতন বাসিন্দা, যত্রতত্র ময়লা ফেলার অপচর্চা,ডাস্টবিনের অভাব, ড্রেন পরিষ্কার ও ময়লা অপসারণে জনপ্রতিনিধিদের উদাসীনতা প্রভৃতি কারণে অপরিচ্ছন্ন হয়ে পড়েছে কুমিল্লা জেলার আদর্শ সদর উপজেলার দুর্গাপুর ইউনিয়নের বদরপুর গ্রামটি। ডাস্টবিন না থাকায় বেশির ভাগ মানুষ রাস্তার আশেপাশে ময়লা স্তূপ করে রাখায় ময়লা দুর্গন্ধে প্রায় ছয় হাজার বাসিন্দা পথ হাঁটা কষ্টকর হয়ে পড়েছে।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, দুর্গাপুর ইউনিয়নের বদরপুর গ্রামের প্রতিটি রাস্তা অলিগলি যত্রতত্র ময়লা-আবর্জনা জমে দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে। অসচেতন দোকানদারগণ ময়লা ড্রেনে ফেলেন। অনেক বাসাবাড়ির লোকজনও উচ্ছিষ্ট, ময়লা-আবর্জনা রাস্তায় ও ড্রেনে ফেলেন। এ জন্য ড্রেনগুলোর পানিপ্রবাহ বন্ধ হয়েছে। সামান্য বৃষ্টি হলেও পুরো এলাকায় এখন জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়। আবর্জনা অপসারণ ও ড্রেন পরিষ্কারে ইউনিয়ন কর্তৃপক্ষের ধীরগতি ও উদাসীনতায়ও গ্রামটি অপরিচ্ছন্ন থাকে।
বদরপুর গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মতিন জানান,পুরো গ্রাম এখন ময়লা-আবর্জনা স্তূপে পরিণত হয়েছে। শিশুরা রাস্তায় নামতে পারছে না দুর্গন্ধে। চেয়ারম্যান ও মেম্বার কাছে বাববার অভিযোগ করে সমাধান মিলেনি। একটু বৃষ্টিতে পুরো এলাকায় পানি জমে যায়। এতে করে মানুষ বের হওয়া কষ্টকর হয়ে ওঠে। আমরা একাধিকভার মানববন্ধন করেও এর সমাধান পাইনি। এর একটি সমাধান চাই।
একই এলাকায় আবুল হোসেন বলেন ,আমাদের এলাকাটি ময়লা-আবর্জনা গ্রামের বলে প্রতিবেশী এলাকায় মানুষ হাসাহাসি করে। গতবছর আমরা এই বিষয় জেলা প্রশাসকের কাছে লিখিত অভিযোগ করেও কোনো সমাধান পাইনি। এলাকার প্রতিটি অলি-গলিতে রাস্তা বর্জ্যের স্তূপ। সামান্য বৃষ্টি হলে মানুষ বের হতে পারে না । আমরা ময়লা-আবর্জনা থেকে বাঁচতে চাই।
এলাকার মতিন মেম্বার জানান, চেয়ারম্যানের সাথে অনেক আলোচনা হয়েছে এবং তিনি সরেজমিন এসে আশ্বাস প্রদান করেছিলেন। আশাকরি তিনি এর একটি সমাধান অতি দ্রুত আমাদের জানাবেন।
এই বিষয় জানতে চাইলে দুর্গাপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ বলেন, বিষয়টি আমরা অবগত আছি। বদরপুর পাশের এলাকাগুলো আবাসিক এলাকায় গড়ে উঠায় ড্রেনগুলো বন্ধ হয়ে গেছে। এতে করে ড্রেনের ওপর মায়লার স্তূপ সৃষ্টি হয়েছে। গ্রামবাসী নতুন ড্রেন খননের জন্য জায়গা না দিলে আমরা কিভাবে ড্রেন করবো ।তারপরও আমরা বিষয়টি নিয়ে কাজ করছি।