শুক্রবার ৩০ জুলাই ২০২১


কুবিতে চূড়ান্ত পরীক্ষার দিনেই মিডটার্ম, শিক্ষার্থীদের বিরূপ প্রতিক্রিয়া


আমাদের কুমিল্লা .কম :
17.06.2021

কুবি প্রতিনিধি।।
কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে সশরীরে সেমিস্টারের চূড়ান্ত পরীক্ষার দিনেই একই কোর্সের মিডটার্ম পরীক্ষা নেয়ার সিদ্ধান্তে বিরূপ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে শিক্ষার্থীরা। মঙ্গলবার (১৬ জুন) এ সংক্রান্ত একটি সংবাদ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্রুপগুলোতে শেয়ার হওয়ার পর সে সংবাদের মন্তব্যঘরে এমন প্রতিক্রিয়া জানান তারা।
জানা গেছে, গত ৩ জুন বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কাউন্সিলের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী করোনা পরিস্থিতির কারণে স্থগিত হওয়া পরীক্ষাগুলো ১৩ জুন থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সশরীরে নেয়া শুরু করে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়। পাশাপাশি অনেকগুলো বিভাগ তাদের মিডটার্ম পরীক্ষাও সশরীরে নেওয়া শুরু করে। ফলে ক্যাম্পাসে জনসমাগম বেড়ে যাওয়ায় শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যঝুঁকির আশঙ্কা করছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা কমিটি। এমতাবস্থায় জনসমাগম কমানোর লক্ষ্যে সেমিস্টার চূড়ান্ত পরীক্ষার দিনই একই কোর্সের মিডটার্ম পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় এ কমিটি। যা আগামী শনিবার (১৯ জুন) থেকে কার্যকর হওয়ার কথা রয়েছে। তবে শিক্ষার্থীরা বলছেন একইদিনে সেমিস্টার চূড়ান্ত পরীক্ষা দিয়ে আবার দুটি মিডটার্ম (প্রতিটি কোর্সের দুটি করে মিডটার্ম নেওয়া হয়) দেওয়া তাদের পক্ষে কষ্টকর হয়ে যাবে।
সোহেল ইবনে আলম নামে ফিন্যান্স এন্ড ব্যাংকিং বিভাগের এক শিক্ষার্থী মন্তব্য করেন, এটা অযৌক্তিক সিদ্ধান্ত। ৩ ঘন্টার সেমিস্টার দিয়ে ওই দিন আবার মিডটার্ম কেমনে দিবো। আমরা মানুষ নাকি রোবট?
জাবেদ ওমর রিফাত নামে আরেকজন শিক্ষার্থী বলেন, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় এর সিদ্ধান্ত গুলো দায়সারা সিদ্ধান্ত বলেই আমি মনে করি। ছাত্র-ছাত্রীদের সুবিধা ও কম্ফোর্টের দিকে না তাকিয়ে তারা তাদের সুবিধা ও কম্ফোর্টের দিকে তাকিয়েই সিদ্ধাত নেয়, যা একজন শিক্ষকের নীতি নৈতিকতা বিরোধী বলেই আমি মনে করি।
ইংরেজি বিভাগের শিক্ষার্থী জয় দেবনাথ বলেন, এটা অবশ্যই ফালতু সিদ্ধান্ত তিন ঘন্টা সেমিস্টার ফাইনাল দিয়ে দুইটা মিড দেয়ার এনার্জি থাকবে? আমাদের হাত কি মেশিন? সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করা দরকার বলে মনে করি।
কেউ আবার বিকল্প পরামর্শ দিয়েও মন্তব্য করেছেন। টি এইচ সাকিব নামে স্নাতকোত্তরের একজন শিক্ষার্থী বলেন, জনসমাগম এড়াতে একই দিনে ২/৩ বার পরীক্ষা না দিয়ে একবার পরীক্ষা দিয়ে একই পরীক্ষার নাম্বারকে আনুপাতিক হারে ব্যবহার করে কি মিড এবং চূড়ান্ত পরীক্ষার জন্য আলাদা আলাদা নাম্বার বের করা সম্ভব নয়?
এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা কমিটির আহবায়ক অধ্যাপক আমিনুল ইসলাম ঢাকা পোস্টকে বলেন, শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যঝুঁকি বিবেচনা করেই উপাচার্য মহোদয়ের নির্দেশক্রমে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। শিক্ষকরাও স্বাস্থ্যঝুঁকি নিয়েই পরীক্ষা নিচ্ছে।
তিনি আরও বলেন, তবে কোন বিভাগ একোমোডেট (স্থান সংকুলান) করতে না পারলে তারা অনলাইন কিংবা অফলাইনে মিডটার্ম পরীক্ষা গ্রহণ করতে পারবে। তবে এক্ষেত্রে অবশ্যই দায়িত্বপ্রাপ্ত ডিনদের সাথে আলোচনার ভিত্তিতে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে হবে।
উপাচার্য অধ্যাপক ড এমরান কবির চৌধুরী ঢাকা পোস্টকে বলেন, এ বিষয়টি আমি কমিটিকে বলবো। কমিটি আবার ভেবে দেখবে।